গুগল এডসেন্স কি? গুগল এডসেন্স থেকে আয় করার উপায় হতভাগা

এস.ই.ও এবং গুগল এডসেন্স থেকে টাকা আয় - অনলাইন লাইভ ব্যাচ - ২০২৪ গুগল এডসেন্স থেকে আয় করার উপায় হতভাগা

গুগল এডসেন্স থেকে আয় করার উপায় হতভাগা: অনলাইন জগতের একটি অন্যতম প্লাটফর্ম হল গুগল। সাধারণত পৃথিবীর অধিকাংশ মানুষ তাদের প্রয়োজন অনুযায়ী যেকোন তত জানার ক্ষেত্রে গুগল কর্তৃক তা জানতে চায়। 

এক্ষেত্রে কিছু বিজ্ঞাপন দাতারা রয়েছে তারা তাদের ওয়েবসাইট বা ব্লক তৈরি করার মাধ্যমে google এ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করে। এভাবে বিজ্ঞাপন দাতারা ওয়েবসাইট তৈরি করে গুগল এডসেন্স এর কাছে আবেদন করে গুগল কর্তৃক একসেপ্ট হলে অর্থ উপার্জন করতে পারে। এজন্য প্রত্যেকটি বিজ্ঞাপন দাতাদের অথবা যারা এ কাজগুলো করতে চায় তাদের জন্য গুগল এডসেন্স সম্পর্কে যথাযথভাবে জানার প্রয়োজনীয়তা রয়েছে।

 

গুগল এডসেন্স পাওয়ার খুঁটিনাটি সমস্ত কৌশল এবং সিক্রেট ট্রিকসসমূহ আমাদের এই কোর্সে আলোচনা করা হবে। 

 ডেমো ক্লাস  ১

আমাদের সাথে যোগাযোগ করার মাধ্যম 

ফেসবুক :     clack 

হোয়ার সাফ:  01984607036

এস.ই.ও এবং গুগল এডসেন্স থেকে টাকা আয় - অনলাইন লাইভ ব্যাচ - ২০২৪

এস.ই.ও এবং গুগল এডসেন্স থেকে টাকা আয় - অনলাইন লাইভ ব্যাচ - ২০২৪


কোর্স মেয়াদ-  ৩০ দিন

মোট ক্লাস ৩০ টি 

আমাদের সাথে যোগাযোগ করার মাধ্যম 

ফেসবুক :     clack 

হোয়ার সাফ:  01984607036


ক্লাসের ধরণ : লাইভ ক্লাস ( ক্লাস শেষে ভিডিও দেয়া হয় )


সপ্তাহে ৭ দিন যেকোনো সমস্যার সমাধানের জন্য আমাদের সাপোর্ট টিম কাজ করে ( সকাল ৯ টা থেকে রাত ১১ টা পর্যন্ত)


এই কোর্সটি করে যা শিখবেন

    • হাতে কলমে - অন পেইজ , অফ পেইজ ও টেকনিক্যাল এস ই ও এর সবকিছু শিখতে পারবেন।

      • আর্টিকেল রাইটিং  এবং গুগল এ আপনার আর্টিকেল rank করানোর কৌশল। 

      • সার্চ ইঞ্জিনে আপনার ওয়েবসাইটের ইম্প্রেশন এবং ক্লিক বাড়ানো এবং অর্গানিক ভিউ পাওয়ার সিক্রেট টিপস। 

      • বিভিন্ন কোম্পানির এড বসিয়ে ইনস্ট্যান্ট ইনকাম শুরু করার টেকনিক সমূহ।

      • গুগল অ্যাডসেন্সের এক্সপার্ট গাইডেন্স সহ ওয়েবসাইট মনিটাইজ করার পরিপূর্ণ গাইডলাইন শিখতে পারবেন।



      ফেসবুক :     clack 

      হোয়ার সাফ:  01984607036


      ডেমো ক্লাস ২

       


      সুপ্রিয় পাঠক বৃন্দ, আজকে আমরা আমাদের উক্ত পোস্টের মাধ্যমে আপনাদেরকে google এডসেন্স করতে কিভাবে গুগল হতে অর্থ উপার্জন করা যায় সে ব্যাপারে বিস্তারিত আলোচনা করার মাধ্যমে জানাবো। 
      অনেকে প্রায় প্রশ্ন করে থাকে যে গুগল কর্তৃক বিভিন্ন অ্যাডসেন্স এর জন্য বিজ্ঞাপন দাতারা ওয়েবসাইট তৈরি করে অর্থ উপার্জন করে থাকেন। সত্যিই কি এর মাধ্যমে অর্থ উপার্জন করা যায়?  অর্থাৎ গুগল কর্তৃক গুগল এডসেন্সের মাধ্যমে কিভাবে অর্থ উপার্জন করা যায় সে ব্যাপারে বিস্তারিত আমরা আমাদের মুক্ত পোস্টের মাধ্যমে আলোচনা করার মাধ্যমে জানাচ্ছি। 

      অনলাইন জগতের একটি অন্যতম প্লাটফর্ম হল গুগল। সাধারণত পৃথিবীর অধিকাংশ মানুষ তাদের প্রয়োজন অনুযায়ী যেকোন তত জানার ক্ষেত্রে গুগল কর্তৃক তা জানতে চায়।  এক্ষেত্রে কিছু বিজ্ঞাপন দাতারা রয়েছে তারা তাদের ওয়েবসাইট বা ব্লক তৈরি করার মাধ্যমে google এ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করে। এভাবে বিজ্ঞাপন দাতারা ওয়েবসাইট তৈরি করে গুগল এডসেন্স এর কাছে আবেদন করে গুগল কর্তৃক একসেপ্ট হলে অর্থ উপার্জন করতে পারে। এজন্য প্রত্যেকটি বিজ্ঞাপন দাতাদের অথবা যারা এ কাজগুলো করতে চায় তাদের জন্য  গুগল এডসেন্স সম্পর্কে যথাযথভাবে জানার প্রয়োজনীয়তা রয়েছে। 

       গুগল এডসেন্স কি?

      গুগল এডসেন্স হলো একটি অনলাইন সার্ভিস। যেখানে বিভিন্ন বিজ্ঞাপন দাতারা যেকোনো বিজ্ঞাপন ইন্টারনেটে দেখাতে পারেন। এছাড়াও বিজ্ঞাপন দাতারা নিজেদের ইউটিউব চ্যানেলের ভিডিওগুলোতে এবং নিজেদের ব্লকগুলোতে বিজ্ঞাপন দেখানোর মাধ্যমে অনলাইন থেকে টাকা উপার্জন করতে পারেন। 

      অর্থাৎ মূল কথা হলো গুগল এডসেন্স হলে নেটওয়ার্ক ভিত্তিক এক ধরনের বিজ্ঞাপন। যেটি ব্যবহার করার মাধ্যমে ওয়েবসাইটের মালিকরা বা ব্লকের মানিকরা বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে টাকা উপার্জন করেন। 

      • বিজ্ঞাপন দাতা :- গুগলকে যারা নিজেদের কোম্পানির বিজ্ঞাপন সমূহ দেখাতে চায়।

      • পাবলিশার :- গুগলের বিজ্ঞাপন গুলোকে নিজেদের ওয়েবসাইট অথবা ইউটিউব এর ভিডিও অনুযায়ী মানুষদের দেখিয়ে থাকেন। 

      অর্থাৎ গুগল এডসেন্স হলো একটি মাধ্যম যেটি ব্যবহার করে অনলাইন থেকে টাকা আয় করার সুযোগ রয়েছে। তবে এক্ষেত্রে প্রথমেই একজন বিজ্ঞাপন দাতাকে একটি ওয়েবসাইট অথবা youtube চ্যানেল ক্রিয়েট করে নিতে হবে। 

      পরবর্তীতে এটি ব্যবহার করে গুগলে এডসেন্স এর জন্য আবেদন করতে হবে। অ্যাডসেন্সের ক্ষেত্রে বিজ্ঞাপন গুলো দেখিয়ে আনলিমিটেড ভাবে উপার্জন করা যায়। 

      গুগল এডসেন্স এর কাজ কি?

      google এডসেন্স এর একটি অন্যতম বা মূল কাজ হলো অনেকে অনেক ধরনের ব্লগ,  অ্যাপস, ইউটিউব ভিডিও এবং ওয়েবসাইট গুলোতে বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করে তাদেরকে  টাকা প্রদান করা।

      এক্ষেত্রে বিজ্ঞাপন সমূহ ওয়েবসাইটে এবং ইউটিউবগুলোতে প্রদর্শন করানো হয়। সেগুলোর জন্য গুগল নামক ওয়েবসাইট মিডিয়াতে বিভিন্ন ধরনের বিজ্ঞাপন দেয়া হয় এবং তার জন্য টাকা নেয়া হয়।  অর্থাৎ সেই টাকা থেকে ওয়েবসাইট কিংবা গুগলের যে সকল মালিক রয়েছে তারা বিজ্ঞাপন দেখানোর জন্য গুগলের পক্ষ থেকে টাকা প্রদান করে থাকে।
      তবে একটি প্রশ্ন করা যায়, উক্ত কাজে গুগলের লাভ কি? 
      বন্ধুরা এ বিষয়ের জন্য  গুগলের অসংখ্য লাভ রয়েছে। 

      পিয়ার মূল কারণ হলো বিজ্ঞাপন যাত্রার সাধারণত বিজ্ঞাপন দেখানোর জন্য গুগলকে পর্যাপ্ত পরিমাণে অর্থ প্রদান করে থাকেন। তবে বিভিন্ন youtube ভিডিও এবং ওয়েবসাইটের যে সকল পাবলিশাররা রয়েছে তারা বিজ্ঞাপন দেখে যে টাকা পায় তার পুরোটাই গুগলের যে পাবলিশার রয়েছে তাদেরকে প্রদান করা হয় না। 

      তাদেরকে যে পরিমাণ অর্থ দেয়া হয় তা সাধারণত ভূগোলের কাছে কিছু অংশ রেখে দেওয়ার পরে কিছু অংশ পাবলিশারদের বিজ্ঞাপন দেখানোর জন্য অর্থ হিসেবে প্রদান করা হয়।  এখানে ওয়েবসাইট, ইউটিউবের মালিক কিংবা গুগলের মালিকদের নিয়ে সবাই একসাথে লাভবান হয়। 

      গুগল এডসেন্স কিভাবে টাকা প্রদান করে?

      আপনারা যখন নিজেদের বিভিন্ন ইউটিউব চ্যানেল কিংবা ওয়েবসাইটগুলোকে গুগল এডসেন্সের জন্য বিজ্ঞাপন দেখায়, তখন সেখানে বিভিন্ন ধরনের বিজ্ঞাপন একত্রে দেখানো হয়ে থাকে। এক্ষেত্রে যখন একজনের ব্লক কিংবা ইউটিউবের ভিডিও সমূহ বিভিন্ন দর্শকরা কিংবা বিজিত প্রবেশ করে থাকে। 

      তখন বিজ্ঞাপন গুলো এবং যে বিজ্ঞাপন গুলো রয়েছে সেগুলোতে ক্লিক করা হয়। তখন তারা বিজ্ঞাপন গুলোতে ক্লিক করার মাধ্যমে সেই সময় গুগল এডসেন্স বিজ্ঞাপনের বিউসমূহ এবং ক্লিকের জন্য অর্থ প্রদান করেন। 

      এভাবে বিজ্ঞাপন দাও তাড়াতাড়ি বিজ্ঞাপন গুলো বিউ এবং ক্লিকের সংখ্যা থেকে যখন আপনার একাউন্টে মোট ১০০ ডলার পর্যাপ্ত হবে তখন এডসেন্স পাবলিশারদের নির্দিষ্ট একাউন্টে টাকা পাঠানো হয়। 

       গুগল এডসেন্সে আবেদন কিভাবে করবেন? 

      প্রথমে বলা হয়েছে গুগল এডসেন্স এর মাধ্যমে টাকা উপার্জন করা হয়। গুগল এডসেন্স ব্যবহার করে,  বিভিন্ন ইউটিউব চ্যানেল ক্রিয়েট করতে হবে এবং ওয়েবসাইট ও ব্লক সমূহ তৈরি করতে হবে  এর মূল কারণ হলো google এডসেন্সের মাধ্যমে যদি বিজ্ঞাপন প্রদর্শন দেখাতে পারেন,  তাহলে আপনার কাছ থেকে একটি ওয়েবসাইট কিংবা ইউটিউব চ্যানেল তৈরি হবে এবং তা থাকবে। 

      এক্ষেত্রে আপনি যদি একটি ওয়েবসাইট কিংবা ইউটিউব চ্যানেলের মালিক থাকেন তাহলে তখন google এ এয়ারসেলসের জন্য ওয়েবসাইটের মাধ্যমে সাইন আপ করে একটি ফরম ফিলাপ করলে সেখান থেকে একটি অ্যাকাউন্টের জন্য গুগলের কাছে আবেদন করতে পারবেন।

      অর্থাৎ, যদি আপনি একটি ইউটিউব চ্যানেল কিংবা ব্লগার ব্যবহার করে থাকেন।

      এক্ষেত্রে একজন ব্যক্তি তাদের নিজেদের তৈরি করা ওয়েবসাইট কিংবা ব্লগার এবং ইউটিউব চ্যানেলগুলো থেকে  গুগলের এডসেন্সের জন্য আবেদন করতে হবে। গুগলের এডসেন্সের জন্য আবেদন করার সাথে সাথে একজন ব্যক্তির একাউন্ট অর্থাৎ ওয়েবসাইট কিংবা ইউটিউব চ্যানেল একসেপ্ট নাও করতে পারে।

      অর্থাৎ এর মানে হলো এই যে, আপনি যখন গুগলের কাছে আবেদন করবেন তখন google আপনার অ্যাকাউন্টটি চালু করার জন্য এটি একসেপ্ট করতে পারে আবার নাও করতে পারে। 
      এজন্য পরবর্তীতে হয়তো আপনাকে পুনরায় আবার আবেদন করতে হবে। 
       
      এক্ষেত্রে মনে রাখবেন যে, আপনি যদি গুগল এডসেন্স প্রোগ্রামের শর্ত অনুযায়ী আবেদন করতে না পারেন তাহলে সেটি আবেদন করার সময় সকল নিয়মকানুন অনুসরণ করার মাধ্যমে আবেদন করতে হবে। 

      অতঃপর আপনার যে ওয়েবসাইটটি রয়েছে সেগুলো গুগলের কাছে এডসেন্সের জন্য নির্বাচিত হওয়ার যোগ্যতা আছে কিনা তা অবশ্যই জেনে নিতে হবে। এবারে একবার আবেদন করার মাধ্যমে এডসেন্স আপনার একাউন্টে চালু করে দিতে পারে।
      আর এভাবেই একজন ব্যক্তি তার google একাউন্ট গুগলের কাছে পাঠানোর পর গুগল একসেপ্ট বা রিজেক্ট যাই হোক,  উক্ত বিষয়ে গুগল থেকে ইনকামের মাধ্যমে আপনাকে জানানো হবে। 

      এভাবে আপনাদেরকে মনে রাখতে হবে যে শুধুমাত্র গুগুলের মাধ্যম ছাড়া আপনার অ্যাকাউন্ট একসেপ্ট করার পর আপনি নিজের ওয়েবসাইট কিংবা ইউটিউব চ্যানেলগুলোতে বিজ্ঞাপন যুক্ত করার মাধ্যমে টাকা ইনকাম করতে শুরু করতে পারবেন, অন্য তাই নয়। 

      গুগল এডসেন্স থেকে কিভাবে টাকা আয় করবেন?

      google যখন একজনের এডসেন্স থেকে অনলাইনের মাধ্যমে টাকা আয় করার জন্য আপনাদের ইউটিউব চ্যানেল কিংবা ওয়েবসাইট গুলো তৈরি করে নিতে হবে।  একটি ওয়েবসাইট তৈরি করে সেখানে আপনি আপনার নিয়ম অনুযায়ী বিভিন্ন আর্টিকেল উপস্থাপন করে লিখে জমা করবেন। অন্যদিকে ইউটিউব এর ক্ষেত্রে ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করে সেখানে বিভিন্ন ভিডিও নিয়মিতভাবে আপলোড করবেন। 

      অতঃপর যখন আপনার ইউটিউব চ্যানেল কিংবা ওয়েবসাইটটিতে ক্রমান্বয়ে বিভিন্ন ভিজিটর আসতে থাকবে।  তখন আপনি গুগলের কাছে এডসেন্সের জন্য আবেদন করবেন। এভাবে গুগল যদি এডসেন্স আপনার একাউন্টের জন্য প্রদান করে তখন আপনি নিজের ওয়েবসাইট অর্থাৎ ইউটিউব চ্যানেল কিংবা ওয়েবসাইট গুলোতে বিভিন্ন ভিডিও এবং বিজ্ঞাপন দেখাতে পারবেন। 

      যতবার আপনার ওয়েবসাইট কিংবা ইউটিউব চ্যানেল দের বিভিন্ন ভিডিও দেওয়া হবে এবং বিজ্ঞাপন দেয়া হবে সেগুলো দেখার জন্য ভিজিটর ক্লিক করবে। এখানে ক্লিক যত বেশি করা হবে আপনাকে গুগল এডসেন্স হতে তত বেশি হারে টাকা প্রদান করা হবে। 

      এভাবে গুগল আপনার এডসেন্স একাউন্টে 100 ডলার হলে, তখন আপনার নির্দিষ্ট একটি ব্যাংক একাউন্টের প্রতি মাসের ২১ তারিখে গুগল কর্তৃক টাকা সেন্ড করে দিবে।

      • গুগল এডসেন্স এর ব্যাপারে কিছু গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন ও তার উত্তর তুলে ধরা হলো :-

      ১. গুগল এডসেন্স থেকে কিভাবে আয় করা যায়? 

      উত্তর:- গুগল এডসেন্স থেকে টাকা ইনকাম করা যায়। এক্ষেত্রে আপনাকে একটি ওয়েবসাইট কিংবা ব্লক তৈরি করতে হবে। আপনার ওয়েবসাইট কিংবা ব্লক অথবা ইউটিউব চ্যানেলে যত বেশি ভিজিটর আসতে শুরু করবে তারপর গুগলের কাছে এডসেন্স পাওয়ার জন্য ওয়েবসাইটে গিয়ে আবেদন করলে সেখানে গুগল যদি এডসেন্স একাউন্ট এর জন্য আপনার আবেদন করতে হবে। পরবর্তীতে গুগল কর্তৃক আপনার অ্যাকাউন্টটি অ্যাপ্রভাল হয়ে গেলে আপনি আপনার নিজের ওয়েবসাইট, ইউটিউব চ্যানেল এবং ব্লগ থেকে বিজ্ঞাপন প্রচার করার মাধ্যমে ইনকাম শুরু করতে পারবেন। 

      ২. গুগল এডসেন্স প্রতিমাসে এক হাজার বিউ তে কত টাকা দেয়? 
      উত্তর:- 
      অনেকেই এমন প্রশ্ন করে থাকে যে গুগল এডসেন্স এর মাধ্যমে প্রতি এক হাজার বিউতে কত টাকা ইনকাম হয়?  
      এ প্রশ্নটির উত্তর এক কথায় দেওয়া সম্ভব নয়। কারণ এটি একটি বিজ্ঞাপনের বিউ এর উপর নির্ভরশীল করে এবং বিজ্ঞাপনে ক্লিক এর উপর নির্ভর করে।  অনেক ক্ষেত্রে ১০০০ বিহুতে পাঁচ ডলার থেকে ১০ ডলার পর্যন্ত অর্থ উপার্জন করা যায়।  

      আবার কোন কোন ক্ষেত্রে ১০০০ বিহুতে অনেকে এক ডলার ইনকাম করতে পারেনা, এক্ষেত্রে অভিজ্ঞতা কর্তিক বলা যায়, আপনার ওয়েবসাইটের প্রতি এক হাজার বিরুদ্ধে ১.৫ ডলার থেকে দুই ডলার পর্যন্ত অর্থ পেতে পারেন। 

      ৩. গুগল এডসেন্সের মালিক কে? 
      উত্তর : গুগল দ্বারা পরিচালিত এবং নিয়ন্ত্রিত একটি প্রোগ্রাম হচ্ছে গুগল এডসেন্স। এজন্য গুগল এয়ারসেলসের প্রকৃত কোন মালিক নেই।  এমনকি ব্যক্তিগত কোন মালিক নেই। 


      সুপ্রিয় পাঠক বৃন্দ আশা করি আমাদের উক্ত পোস্টে পড়ার মাধ্যমে আপনারা গুগল এডসেন্স করতে কিভাবে টাকা ইনকাম করা যায় সে ব্যাপারে এবং একটি ওয়েবসাইট কিংবা ইউটিউব চ্যানেল ক্রিয়েট করে কিভাবে অর্থ উপার্জন করা যায় সে ব্যাপারে যথাযথভাবে জানতে পেরেছেন। 

      এছাড়াও গুগল এডসেন্স করতে ইনকাম করার ক্ষেত্রে একটি ওয়েবসাইট কিংবা ব্লক তৈরি করার মাধ্যমে গুগলের বিভিন্ন ধরনের বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করে গুগলের কাছে এডসেন্সের জন্য আবেদন করা হয়। গুগল যদি আপনার এডসেন্স একসেপ্ট করে নেন তাহলে আপনার ওয়েবসাইটের ভিউয়ের উপর নির্ভর করে google কর্তৃক আপনারা অর্থ উপার্জন করতে পারবেন। 

      পোস্টের মাধ্যমে গুগল এডসেন্স সম্পর্কে জানার মাধ্যমে আপনারা যথাযথভাবে উপকৃত হতে পারবেন। 
      ধন্যবাদ, ভালো থাকবেন এবং আমাদের সাথেই থাকবেন।
      Next Post
      No Comment
      Add Comment
      comment url